logo

এস.আই.ইউ. উপাচার্য হিসেবে প্রফেসর ড. মো. আশরাফুল আলম যোগদান

Published    9 months ago

Image

সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য হিসেবে প্রফেসর ড. মো. আশরাফুল আলম যোগদান করেছেন।

বুধবার (১৬ আগস্ট ২০২৩) যোগদানকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টির চেয়ারম্যান রাজীব আহমেদ এবং সদস্য সাহিদা ইয়াসমিন চৌধুরী ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়ে বরণ করেন। এ সময় তিনি মহামান্য রাষ্ট্রপ্রতি ও অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর মোহাম্মদ সাহাবুদ্দিন কর্তৃক নিয়োগকৃত নতুন উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. আশরাফুল আলমের হাতে যোগদানপত্র তুলে দেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর নিতাই চন্দ্র চন্দ, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার নূসরাত মাহমুদ চৌধুরী, ইংরেজি বিভাগের ডিন লেখক-গবেষক ড. আবুল ফতেহ, আইন অনুষদের ডিন মো. মাহমুদুল হাসান খান ও লাইব্রেরিয়ান ও আমেরিকান কর্ণারের পরিচালক মো. মোস্তফা কামাল প্রমুখ। উপাচার্য যোগদানের পরপরই বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের ফ্যাকাল্টিবৃন্দ, শিক্ষার্থীবৃন্দ, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ তাঁকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে বরণ করেন।

রোববার (১৩ আগস্ট ২০২৩) সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির নবনিযুক্ত উপাচার্য হিসেবে শাহ্জালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. আশরাফুল আলমকে নিয়োগের প্রজ্ঞাপন জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য ও রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন চার বছরের জন্য তাঁকে এই পদে নিয়োগ দিয়েছেন।

শর্ত অনুযায়ী, অধ্যাপক ড. আশরাফুল আলম উপাচার্য পদে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নির্ধারিত বেতন-ভাতা প্রাপ্য হবেন এবং পদ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা ভোগ করবেন। তিনি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন ২০১০ অনুযায়ী দায়িত্ব পালন করবেন।

অধ্যাপক আশরাফুল শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগ থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। ২০০৫ সালে তিনি জাপান থেকে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। ২০১৩ সালে তিনি পোস্ট ডক্টরেট ডিগ্রি লাভ করেন। তিনি শেরপুর জেলায় জন্মগ্রহণ করেছেন।

১৯৯৬ সাল থেকে তিনি শিক্ষকতা পেশায় নিয়োজিত আছেন। দীর্ঘ ২৭ বছরের শিক্ষকতা ছাড়াও তিনি শাবিপ্রবির শাহ পরান হলের প্রভোস্ট, ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাস্যুরেন্স সেল (আইকিউএসি)-এর পরিচালক, রসায়ন বিভাগের চেয়ারম্যান, শিক্ষক সমিতির সহসভাপতিসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) ও অ্যাক্রেডিটেশন কাউন্সিলের তালিকাভুক্ত অ্যাকাডেমিক কোয়ালিটি এক্সপার্ট হিসেবে আছেন। দেশ-বিদেশের বিভিন্ন জার্নালে তাঁর উল্লেখযোগ্য সংখ্যক গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে।