logo

এস আই ইউ তে ইংরেজি বিভাগের ২২তম ব্যাচের বিদায় অনুষ্ঠান সম্পন্ন।

Published    8 months ago

Image

১০ মার্চ ২০১৯ রবিবার সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ইংরেজি বিভাগের উদ্যোগে বিভাগের ২২তম ব্যাচের বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

৪র্থ বর্ষ ২য় সেমিস্টারের উক্ত বিদায় অনুষ্ঠানে বিদায়ী ব্যাচের শিক্ষার্থীদের উদ্দ্যেশ্যে বক্তারা বলেছেন, জ্ঞান অর্জনের কোন শেষ নেই। জ্ঞান ও নীতির সঠিক প্রয়োগের মাধ্যমেই জীবনে সাফল্য আসে। বক্তারা শিক্ষার্থীদের অধ্যাবস্যায়ের মাধ্যমে জীবনে সকল প্রতিকূলতা মোকাবেলার পরামর্শ দেন। তারা বিদায়ী শিক্ষার্থীদের আদর্শ নাগরিক হয়ে সমাজের কল্যানে এগিয়ে আসার আহবান জানান।

বিশ্ববিদ্যালয়ের হলরুমে “এভ্রি এন্ডিং হ্যাজ এ নিউ বিগিনিং” শীর্ষক শিরোনামে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন। সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির মাননীয় কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মোঃ মনির উদ্দীন। বিভাগীয় প্রধান জনাব মোঃ জাকারিয়া হাবিব স্যারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন স্কুল অব হিউম্যানিটিস এন্ড সোশ্যাল সাইন্সেস এর মাননীয় ডীন অধ্যাপক সৈয়দ মুইজুর রহমান। আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন  ডীন স্কুল অব সায়েন্স জনাব ঋষীকেশ ঘোষ, সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক সৈয়দ হাসান মাহমুদ, পরিচালক প্রশাষন ও জনসংযোগ বিভাগ এবং ১০ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জনাব তারেক উদ্দীন তাজ, পরিচালক আমেরিকান কর্ণার এবং ডেপুটি লাইব্রেরিয়ান জনাব মোস্তফা কামাল, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আবু সয়ীদ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ এবং রেজিস্ট্রার জনাব নসরত আফজা চৌধুরী।

ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী সুপ্রিয়া তালুকদার, রেজাউল করিম এবং ফাহমিদা আরা মাহমুদের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জনাব মোহাব্বাত হোসেন, সহকারী অধ্যাপক জনাব মোস্তাফিজুর রহমান, সহকারী অধ্যাপক জনাব সৈয়দ হাসান মাহমুদ, সহকারী অধ্যাপক জনাব প্রণব কান্তি দেব, জেষ্ঠ্য প্রভাষক জনাব নূরুল হাসান রাজীব, প্রভাষক স্বাতী রানী দেবনাথ, প্রভাষক হুমায়রা রহমান সোমা, প্রভাষক ফারজানা আকঞ্জি এবং সেকশন অফিসার বিপ্রেশ রায়। এসময় কনিষ্ট শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে বিদায়ী শিক্ষার্থীদের উদ্দ্যেশ্যে বক্তব্য রাখেন আবু সুফিয়ান তারেক এবং কাজল মিয়া। বিদায়ী শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে স্মৃতিচারনমূলক আবেগ অনুভূতি ব্যক্ত করেন কায়েস আহমেদ, লিনা বেগম, সামিয়া হাসান এবং লতিফা সিদ্দিকা তামান্না।

আলোচনা শেষে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি আমন্ত্রিত শিল্পী হিসেবে শ্যামা রানী দেবী এবং আশরাফুল ইসলাম অনি সংগীত পরিবেশন করেন।