Cyber Crime Seminar

সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বোর্ড অব ট্রাস্টিজ এর চেয়ারপার্সন শামীম আহমেদ বলেছেন, আমাদের সমাজে তথ্য প্রযুক্তির দ্রæত বাস্তবায়ন এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে এর ব্যবহার বৃদ্ধির সাথে সাথে অনেক ক্ষেত্রেই এর ব্যবহার ও প্রয়োগে বিঘ্ন সৃস্টি করা হয়, যা সাইবার ঝুঁকি। ঝুকিহীন সাইবার পরিবেশ সৃস্টির লক্ষ্যে এর নিরাপত্তার বিষয়ে সবাইকে সর্তক থাকতে হবে। তথ্য প্রযুক্তি আইনে যে শাস্তির বিধান রাখা হয়েছে তা সবাইকে মনে রেখেই এই সম্ভবনাকে ঠিকিয়ে রাখতে হবে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে তথ্য ও যোগাযোগ বিভাগ আয়োজিত এবং সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সহযোগিতায় সাইবার নিরাপত্তা এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন বিষয়ে সচেতনাতা বৃদ্ধি কর্মশালায় তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্য এই কথা বলেন। সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির মিলনায়তনে এ কর্মশালাটি অনুষ্টিত হয়। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. সুশান্ত কুমার দাশ। কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন- বিজ্ঞান অনুষদের ডীন ঋষিকেশ ঘোষ। প্রাচুর্য্য গোস্বামীর পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির প্রক্টর জওহর লাল দাশ, ইসিই বিভাগের প্রধান সহযোগী অধ্যাপক এমরামুল ফারুক, সিএসসি বিভাগের প্রধান প্রফেসর খন্দকার মুমিনুল হক, জনসংযোগ কর্র্মকতা তারেক উদ্দিন তাজ প্রমুখ। কর্মশালায় সাইবার নিরাপত্তার কর্মকর্তা তানভির হাসান জোহা, পরিচালক আনোয়ার হোসেন, টিসিটির আইন বিশেষজ্ঞ অ্যাডভোকেট বিপ্রেশ দাশ সাইবার নিরাপত্তা কর্মসূচির যৌক্তিকতা তুলে ধরে বলেন, অধিকাংশ জনগোষ্ঠি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন ২০০৬ (২০১৩ সংশোধিত) সম্পর্কে পুরোপুরিভাবে অবগত নয়। ফলে প্রতিনিয়ত অনেকেই নানা সাইবার অপরাধের সাথে জড়িয়ে পড়ছে। এক সময় ভয়াবহ রূপ ধারণ করতে পারে এই ক্রাইম, তাই সংশোধিত আইনে কম্পিউটারে যে কোন ধরনের তথ্য চুরি অথবা বিকৃতি ঘটালে অনধিক ১৪ বছরের এবং অনূন্য ৭ বছর কারাদন্ডে বা অনধিক ১০ লক্ষ টাকা অর্থ দন্ডে বা উভর দন্ডে দন্ডিত হবেন। এছাড়ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ওয়েব সাইটে মিথ্য, অশ্লীল অথবা মানহানিকর ছবি প্রকাশ করলে অনধিক ১৪ বছরের এবং অনূন্য ৭ বছর কারাদন্ডে বা অনধিক ১ কোটি টাকা অর্থ দন্ডে দন্ডিত হবেন। তাই তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন জানা থাকলে অপরাধ প্রবণতা কমে যাবে। এসময় কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন প্রত্যেক বিভাগের প্রধানগন, সকল শিক্ষক শিক্ষীকাবৃন্দ এছাড়াও অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল কর্র্মকতা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীবৃন্দ।

Source: Click here

Content